খাদ্য ও ভিটামিন নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ কিছু প্রশ্ন।

আজকে আমরা জানবো খাদ্য ও ভিটামিন নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ কিছু প্রশ্ন । এই টপিক থেকে প্রায় সকল ধরনের প্রতিযোগিতা মুলক পরীক্ষায় প্রশ্ন আসে।

 

১। খাদ্য কাকে বলে?

উত্তর-যা খেলে শরীরে শক্তি হয়,শরীরের ক্ষয়পূরণ করে এবং শরীরের বৃদ্ধি ঘটে তাকে খাদ্য বলে।

২।সুষম খাদ্যের উপাদান কয়টি?

উত্তর – ৬ টি।যথা- শর্করা, আমিষ,স্নেহ, ভিটামিন, খনিজ,লবণ এবং পানি।

৩।সুষম খাদ্যে শর্করা, আমিষ ও স্নেহজাতীয় খাবারের অনুপাত কত?

উত্তর- ৪ঃ১ঃ১।

৪।কোন খাদ্য কে আদর্শ খাদ্য বলা হয়?

উত্তর-দুধ।

৫।কোন খাদ্য উপাদান থেকে শক্তি পাওয়া যায়?

উত্তর – শর্করা, আমিষ ও স্নেহ।

৬।একজন পূর্ণবয়স্ক ব্যক্তির দৈনিক গড়ে কত ক্যালরি শক্তির প্রয়োজন?

উত্তর – ২২০০ ক্যালরি।

Read  বাংলা ভাষা নিয়ে প্রশ্ন ও উত্তর

৭।আমাদের দেশে একজন একজন পূর্ণনয়স্ক ব্যক্তির দৈনিক গড়ে কত ক্যালরি শক্তির প্রয়োজন?

উত্তর- ২৫০০ ক্যালরি।

৮।অতিরিক্ত শর্করা জাতীয় খাদ্য প্রাণিদেহে কী হিসাবে জমা হয়?

উত্তর- গ্লাইকোজেন হিসাবে।

৯।মানবদেহে গ্লাইকোজেন কোথায় জমা থাকে?

উত্তর – যকৃত বা লিভারে।

১০।দুধের শ্বেতসার অংশ কে কী বলে?

উত্তর- ল্যাক্টোজ।

১১।দুধের প্রোটিনের নাম কি?

উত্তর- কেসিন।

১২।দেহে আমিষ বা প্রোটিনের প্রধান কাজ কি?

উত্তর – দেহের বৃদ্ধি সাধন ও ক্ষয়পূরণ করা এবং কোষ গঠনে সহায়তা করা।

১৩।দেহ গঠনে কোন উপাদানের প্রয়োজন সবচেয়ে বেশি?

উত্তর – আমিষ বা প্রোটিন জাতীয় খাবারের।

১৪।আমিষ জাতীয় খাবারের অভাবে কী রোগ হয়?

উত্তর – কোয়াশিয়রকর ও মেরাসমাস।

১৫।কোলেস্টেরল কী? উত্তর – এক ধরনের অস্পৃক্ত অ্যালকোহল।

Read  বাংলাদেশের ঐতিহাসিক গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা ও স্থানের তালিকা।

১৬।কোলেস্টেরলের উৎস কি?

উত্তর- ডিমের কুসুম, কলিজা,মগজ,গরুর মাংস, খাসির মাংস ইত্যাদি।

১৭।মানব দেহে কতভাগ খনিজ লবণ থাকে?

উত্তর – ৪ ভাগ শতকরা।

১৮।কোন শাকে লৌহের পরিমাণ সবচেয়ে বেশি?

উত্তর- কচু শাক।

১৯।মানব দেহে লৌহের কাজ কী?

উত্তর- হিমোগ্লোবিনের হিম অংশ তৈরীতে লৌহ অপরিহার্য।

২০।লৌহের অভাবে কী রোগ হয়?

উত্তর – রক্তশূন্যতা।

২১।হাড় ও দাঁত গঠনে কোন কোন মৌল গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে?

উত্তর – ক্যালসিয়াম ও ফসফরাস।

আমাদের সাথে থাকার জন্য আন্তরিক ভাবে ধন্যবাদ জানাই,সকল কে। আশাকরি আমাদের চেষ্টা আপনাদের কাজে আসবে।

তথ্য সূত্র-

উইকিপিডিয়া

বাংলাপিডিয়া

BCS Preliminary Analysis-গাজী মিজানুর রহমান

Leave a Comment

You cannot copy content of this page